মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

এক নজরে বিআরটিএ

.

গঠন: মোটরযান অধ্যাদেশ ১৯৮৩ (সংশোধিত ১৯৮৭) এর ধারা ২এ অনুযায়ী ২০ ডিসেম্বর ১৯৮৭ তারিখে এসআরও নং ৩০৩/আইন/৮৭/এমভিআরটি/১ই-৭/৮৪(অংশ) এর মধ্যমে বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট  অথরিটি(বিআরটিএ) গঠিত হয় এবং ১৯৮৮ সালের জানুয়ারি থেকে কার্যক্রম শুরু করে।

 

উদ্দেশ্য: শুষ্ঠু সড়ক পরিবহন ব্যবস্থাপনা, সড়ক পরিবহণ সেক্টরে শৃঙ্খলা এবং সড়ক নিরাপত্তা বিধান কল্পে বিআরটিএ গঠন করা হয়। মোটরযান অধ্যাদেশ ১৯৮৩ বাস্তবায়নের উদ্দেশ্যে তৎকালীন যোগাযোগ মন্ত্রণালয় (বর্তমানে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়)-এর অধীন বিআরটিএ গঠন করা হয়।

 

গঠনতন্ত্র: চেয়ারম্যান বিআরটিএ’র সর্বময় ক্ষমতার অধিকারী। সরকার কর্তৃক সময় সময় জারীকৃত কার্য সম্পাদন করাও চেয়ারম্যানের দায়িত্ব।

 

সংশোধিত অর্গানোগ্রাম অনুযায়ী বর্তমানে বিআরটিএ’র মোট বিভাগীয় অফিস ৭টি এবং সার্কেল অফিস ৬২টি। এর মধ্যে জেলা সার্কেল ৫৭টি এবং মেট্রো সার্কেল ৫টি। বাংলাদেশের ৬৪টি জেলার মধ্যে বর্তমানে ৫৭টি জেলায় বিআরটিএ’র পূর্নাঙ্গ সার্কেল অফিস অছে।এর মধ্যে বিআরটিএ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সার্কেল একটি। অবশিষ্ট ০৭টি জেলায় পার্শ্ববর্তী জেলা সার্কেল অফিসের সহকারী পরিচালক (ইঞ্জি:) কর্তৃক বিআরটিএ সংশ্লিষ্ট কার্যক্রম সম্পাদন করা হয়।

 

বিআরটিএ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সার্কেলটি ২০০৮ সালে পূর্ণাঙ্গ  সার্কেল অনুসারে কার্যক্রম শুরু হয়। এ দপ্তরটি পূর্বে বিআরটিএ কুমিল্লা সার্কেলের অধিনে একটি জোন অফিস ছিল।

 

বিভাগীয় অফিসের প্রধান হচ্ছেন উপপরিচালক(ইঞ্জি:) এবং বিআরটিএ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সার্কেল অফিসের প্রধান হচ্ছেন সহকারী পরিচালক(ইঞ্জি:)।

 

 

ছবি


সংযুক্তি



Share with :

Facebook Twitter